লোহা ও ইস্পাত শিল্প কী? লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার অনুকূল কারণগুলো বর্ণনা কর

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় দর্শক - দৈনিক শিক্ষা ব্লগর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম। আজকে আমি আপনাদের মাঝে লোহা ও ইস্পাত শিল্প কী? লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার অনুকূল কারণগুলো বর্ণনা কর নিয়ে আলোচনা করব।

লোহা ও ইস্পাত শিল্প কী? লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার অনুকূল কারণগুলো বর্ণনা কর।

ভূমিকা: পরিশেষে বলা যায় যে, লোহা ও ইস্পাত উৎপাদনে নিয়োজিত শিল্পকে লোহা ও ইস্পাত শিল্প বলে। খনি হতে সংগৃহীত আকরিক লোহাকে কোর্ক, কয়লা ও চুনাপাথরের সাথে মিশ্রিত করে তাপের সাহায্যে গলিয়ে কাঁচা লোহার সাথে ম্যাঙ্গানিজ, টাংস্টেন, ক্রোমিয়াম, নিকেল প্রভৃতি লোহা সংকর ধাতব মিশিয়ে ইস্পাত প্রস্তুত করা হয়।

সংজ্ঞাঃ যে শিল্পে লোহাপিণ্ড ও ইস্পাত প্রস্তুত হয়, তাকে লোহা ও ইস্পাত বলে। লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার কারণ বা অনুকূল উপাদানসমূহ: কতগুলো প্রাকৃতিক ও অপ্রাকৃতিক উপাদানের প্রাপ্তব্যতার উপর াহা ও ইস্পাত শিল্পের স্থানীয়করণ নির্ভর করে।

লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার কারণ: কতিপয় কারণ লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার পিছনে কাজ করে। সাধারণত ভৌগোলিক ও অর্থনৈতিক উপাদানের উপর লোহা ও ইস্পাত শিল্পের স্থানীয়করণ সম্পূর্ণরূপে নির্ভরশীল। নিম্নে এসব উপাদানের বিবরণ প্রদত্ত হলোঃ

প্রাকৃতিক/ভৌগোলিক উপাদান: লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার ভৌগোলিক উপাদানগুলো নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ

  1. লোহা আকরিকের সান্নিধ্য: লোহা ও ইস্পাত শিল্পের প্রধান কাঁচামাল লোহা আকরিক। লোহা খুব ভারী বলে তা বহন করা কষ্টসাধ্য ও ব্যয়বহুল। এ কারণে লোহা ও ইস্পাত শিল্পগুলো লোহা খনির নিকটে গড়ে উঠেছে।
  2. অন্যান্য কাঁচামালের সান্নিধ্য: চুনাপাথর, ম্যাঙ্গানিজ, নিকেল প্রভৃতি ইস্পাত উৎপাদনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। তাই উপরিউক্ত উপাদানসমূহ যে সকল অঞ্চলে প্রচুর পরিমাণে বিদ্যমান সে সকল অঞ্চলে লোহা ও ইস্পাত কেন্দ্রীভূত হয়ে থাকে।
  3. কয়লার সান্নিধ্য: এ শিল্পের প্রধান জ্বালানি কয়লা। লোহা আকরিক বহন ব্যয় অপেক্ষা জ্বালানি বহন ব্যয় অধিক বিবেচিত হওয়ায় পৃথিবীর অনেক দেশেই কয়লা সমৃদ্ধ অঞ্চলে লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠেছে। যেমন - আমেরিকার কয়লা সমৃদ্ধ পিটাসবার্গ অঞ্চলে লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠেছে।
  4. পানি সরবরাহ: লোহা ও ইস্পাত শিল্পাঞ্চলে পর্যাপ্ত শীতল পানি সরবরাহ থাকা অপরিহার্য। কারণ লোহা আকরিক ধৌত ও পরিশোধন এবং পিগ আয়রন ঠাণ্ডা করার জন্য শীতল পানির প্রয়োজন হয়।
  5. ব্যাপক সমতল ভূমি: লোহা ও ইস্পাত শিল্প কেন্দ্রে লোহা আকরিক এবং এর জ্বালানি সংরক্ষণের জন্য ব্যাপক সমতল ভূমি প্রয়োজন।
  6. জলবায়ু: শীতল নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু অঞ্চলে এ শিল্পের স্থানীয়করণের প্রভাব বিস্তার করে। তা ছাড়া শীতল নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু শ্রমিকদের স্বার্থের পক্ষে অনুকূল এবং তা কর্মীদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

অর্থনৈতিক উপাদান: লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে ওঠার অর্থনৈতিক উৎপাদনগলো নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ

  1. বাজার: বিক্রয়ের জন্য শিল্পজাত দ্রব্য প্রস্তুত হয়ে থাকে। জাপানে কয়লা ও আকরিক কিছুই নেই তবুও এখানে লোহা ও ইস্পাত শিল্প স্থাপিত হয়েছে। কারণ বিশ্ববাজারে জাপানের লোহাজাত দ্রব্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।
  2. মূলধন: ভূমি ক্রয়, অট্টালিকা নির্মাণ যন্ত্রপাতি ও কাঁচামাল ক্রয়, শ্রমিকদের বাসস্থান নির্মাণ, বেতন প্রদান ইত্যাদি বাবদ প্রচুর মূলধনের প্রয়োজন হয়। মূলধনের প্রাচুর্য থাকায় যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, সোভিয়েত ইউনিয়ন প্রভৃতি ধনী দেশগুলোতে লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠেছে।
  3. সুষ্ঠু পরিবহন: শিল্পকারখানার কাঁচামাল সংগ্রহ এবং শিল্পজাত দ্রব্য বাজারে পাঠানোর জন্য সুষ্ঠু পরিবহন ব্যবস্থার প্রয়োজন। পশ্চিম জার্মানি, জাপান, যুক্তরাজ্য প্রভৃতি দেশে সুষ্ঠু পরিবহন ব্যবস্থা থাকায় প্রয়োজনীয় কাঁচামাল আমদানি করে এ সকল দেশ শিল্পে উন্নতি লাভ করেছে।
  4. শ্রমিক সরবরাহ: লোহা ও ইস্পাত শিল্পের জন্য বহু শ্রমিকের প্রয়োজন। এ কারণে শিল্প কেন্দ্রে সুলভে শ্রমিক সরবরাহের বন্দোবস্ত থাকা আবশ্যক। সুলভ শ্রমিকের কারণে জাপান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের জনরহুল দেশগুলোতে এ শিল্প প্রসার লাভ করছে।
  5. দক্ষ বিশেষজ্ঞ: এ শিল্পের উন্নতির জন্য কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ বিশেষজ্ঞ প্রয়োজন।
  6. সরকারি প্রচেষ্টা: স্থিতিশীল সরকার ও সরকারি প্রচেষ্টা এ শিল্পের যথেষ্ট সাহায্য করে থাকে। স্থানীয় কয়লা, পানি বিদ্যুৎ, চুনাপাথর, আমদানিকৃত লোহা আকরিক, উন্নত পরিবহন ব্যবস্থা প্রভৃতি কারণে যুক্তরাজ্যে লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠেছে এবং প্রতি বছর প্রচুর পরিমাণে লোহা ও ইস্পাতজাত দ্রব্য যুক্তরাজ্য বিশ্ববাজারে রপ্তানি করে থাকে।

উপসংহার: পরিশেষে বলা যায় যে, শিল্প স্থাপনের অন্যান্য উপাদানের মধ্যে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা, স্বল্প প্রতিযোগিতা, প্রচুর প্রাকৃতিক সম্পদ, সুনাম প্রভৃতি পূর্ণ ভূমিকা রাখে। লোহা ইস্পাত শিল্প গঠনে এ উপাদানগুলো সমভাবে প্রযোজ্য।

আপনার আসলেই দৈনিক শিক্ষা ব্লগর একজন মূল্যবান পাঠক। লোহা ও ইস্পাত শিল্প কী? লোহা ও ইস্পাত শিল্প গড়ে উঠার অনুকূল কারণগুলো বর্ণনা কর এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url