প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর বলতে কী বুঝায়? প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা কর।

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় দর্শক - দৈনিক শিক্ষা ব্লগর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম। আজকে আমি আপনাদের মাঝে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর বলতে কী বুঝায়? প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা কর। নিয়ে আলোচনা করব।

প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর বলতে কী বুঝায়? প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা কর।

প্রত্যক্ষ করঃ যে ব্যক্তির উপর কার ধার্য করা হয় তাকে যদি করের বোঝা বহন করতে হয় তবে সেই করকে প্রত্যক্ষ কর বলা হয়। সরকার যার উপর কর ধার্য করেন, তাকে করের প্রাথমিক করঘাত বলা হয়। এ কর শেষ পর্যন্ত যে ব্যক্তি বহন করে তার উপর করের চূড়ান্ত বোঝা পড়ে।

করের এই চূড়ান্ত বোঝা বা ভারকে করপাত বলা হয়। প্রত্যক্ষ করের ক্ষেত্রে করঘাত ও করপাত একই ব্যক্তির উপর পড়ে। সুতরাং যে করের প্রাথমিক বোঝা ও চূড়ান্ত বোঝা বা ভার একই ব্যক্তি বহন করে, তাকে প্রত্যক্ষ কর বলা হয়। যেমন- আয়কর, সম্পদ কর, ভূমি রাজস্ব কর ইত্যাদি।

পরোক্ষ কর: কোনো ব্যক্তির উপর কর ধার্য করা হলে সে যদি তার বোঝা অন্য কারও কাঁধে চাপাতে পারে তবে তাকে পরোক্ষ কর বলে। পরোক্ষ কর যার উপর ধার্য করা হয় তাকে এর বোঝা বহন করতে হয় না। সে করের বোঝা অন্যের উপর চাপাতে পারে।

যেমন- বিক্রয় কর, প্রমোদ কর ইত্যাদি। সুতরাং যে করের করঘাত ও করপাত ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তি বহন করে তাকে পরোক্ষ কর বলা হয়। বিক্রয় করের করঘাত বিক্রেতার উপর এবং করপাত ক্রেতার উপর পড়ে।

প্রত্যক্ষ কর ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্য: প্রত্যক্ষ কর ও পরোক্ষ কর উভয়ই সরকারের আয়ের উৎস। এতদসত্ত্বেও এই দু'ধরনের করের মধ্যে মৌলিক পার্থক্য রয়েছে। নিম্নে প্রত্যক্ষ কর ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্যগুলো আলোচনা করা হলো:

  1. প্রত্যক্ষ করের করঘাত ও করপাত একই ব্যক্তির উপর পড়ে। কিন্তু পরোক্ষ করের করঘাত একজনের উপর এবং করপাত অন্যজনের উপর পড়ে। ধরা যাক, এক ব্যক্তিকে ১,০০০ টাকা আয় কর দিতে হয়। এই কর হলো প্রত্যক্ষ কর। এর করঘাত ও করপাত করদাতাকেই বহন করতে হয়। কিন্তু এটি বিক্রয় করের মতো কোনো পরোক্ষ কর হলে করদাতাকে করের বোঝা বহন করতে হয় না।
  2. প্রত্যক্ষ করের ভার বা বোঝা অন্যের উপর চাপানো যায় না। কিন্তু পরোক্ষ করের ভার বা বোঝা অন্যের উপর চাপানো যায়। ধরা যাক, একজন কাপড় বিক্রেতাকে ৫০০ টাকা কর দিতে হয়। সে করের অর্থ প্রদান করলেও করের ভার ক্রেতার উপর চাপিয়ে দিয়ে করের অর্থ সংগ্রহ করতে পারে।
  3. প্রত্যক্ষ করের প্রাথমিক ভার ও শেষভার করদাতাকে বহন করতে হয়। কিন্তু পরোক্ষ করের প্রাথমিক ভার করদাতা বহন করলেও শেষভার তাকে বহন করতে হয় না।
  4. প্রত্যক্ষ কর নাগরিক চেতনার উন্মেষ ঘটায়। কিন্তু পরোক্ষ কর নাগরিক চেতনার উন্মেষ ঘটায় না।
  5. প্রত্যক্ষ কর পীড়াদায়ক, কেননা প্রত্যক্ষভাবে অর্থ দ্বারা কর পরিশোধ করতে হয়। পক্ষান্তরে, পরোক্ষ কর জনপ্রিয়, কেননা প্রত্যক্ষভাবে করের অর্থ পরিশোধ করতে হয় না।

উপরিউক্ত আলোচনা হতে দেখা যায় যে, প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে যথেষ্ট পার্থক্য আছে। তবে এ দু'ধরনের করের মধ্যে পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও তা নির্ধারণ করা খুবই কঠিন। যেমন- ডাক্তারের আয়ের উপর যে কর ধার্য করা হয় তা আয়কর। এই কর হলো প্রত্যক্ষ কর, যার বোঝা অন্যের উপর চাপানো যায় না।

কিন্তু একজন ডাক্তার ফি বৃদ্ধি করে রোগীদের নিকট হতে করের অর্থ আদায় করতে পারে। এক্ষেত্রে কর দানের উদ্দেশ্য আদায়কৃত বর্ধিত ফি পরোক্ষ কর হিসেবে বিবেচিত হয়। সুতরাং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে প্রকৃত পার্থক্য অপেক্ষা তত্ত্বগত পার্থক্যই লক্ষণীয়।

আপনার আসলেই দৈনিক শিক্ষা ব্লগর একজন মূল্যবান পাঠক। প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর বলতে কী বুঝায়? প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ করের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা কর। এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url