অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা কর।

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় দর্শক - দৈনিক শিক্ষা ব্লগর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম। আজকে আমি আপনাদের মাঝে অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা কর। নিয়ে আলোচনা করব।

অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা কর।

অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা কর। অথবা, অর্থনীতি বলতে কী বুঝায়? অর্থনীতি পাঠের গুরুত্ব বর্ণনা কর। অথবা, অধ্যাপক এল. রবিন্স প্রদত্ত অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের গুরুত্ব বর্ণনা কর।

অর্থনীতির সংজ্ঞা: অর্থনীতি সমাজ বিষয়ক বিজ্ঞানের সেই অংশ, যা সমাজবদ্ধ মানুষের আর্থিক দিক নিয়ে আলোচনা করে। অর্থাৎ অর্থনীতি হলো এমন একটি পরিবর্তনশীল সামাজিক বিজ্ঞান যা মানুষের আয় ও এর বণ্টন, কর্মসংস্থান, মানবিক কল্যাণ এবং সামগ্রিকভাবে অর্থনৈতিক উন্নয়নকল্পে অসীম অভাব ও বিকল্প ব্যবহার উপযোগী সীমিত সম্পদের মধ্যে সমন্বয় সাধনের পথ নির্দেশ করে। বিভিন্ন অর্থনীতিবিদ অর্থনীতির বহুবিধ সংজ্ঞা দিয়েছেন। নিম্নে তাঁদের দেয়া অর্থনীতির কয়েকটি প্রামাণ্য সংজ্ঞা তুলে ধরা হলো: 

  1. অর্থনীতির জনক এডাম স্মিথ তাঁর 'Wealth of Nations' গ্রন্থে বলেছেন, অর্থনীতি এমন একটি বিজ্ঞান যা জাতিসমূহের - সম্পদের প্রকৃতি ও কারণ সম্বন্ধে অনুসন্ধান করে।
  2. অধ্যাপক মার্শাল বলেছেন, অর্থনীতি মানুষের দৈনন্দিন জীবনের সাধারণ কার্যাবলি পর্যালোচনা করে।
  3. অধ্যাপক এল, রবিল-এর মতে, অর্থনীতি এমন একটি বিজ্ঞান যা মানুষের অভাব ও বিকল্প ব্যবহারযোগ্য অপ্রতুল উপকরণের মধ্যে সম্পর্ক পর্যালোচনা করে।

অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা/গুরুত্বঃ নিম্নে বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা আলোচনা করা হলো:

  1. মানুষের দৈনন্দিন জীবনে: সমাজবদ্ধ মানুষকে দৈনন্দিন জীবনে যেসব সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তার সমাধান খুঁজে পেতে অর্থনীতি পাঠ করা প্রয়োজন। অসীম অভাব ও সীমাবদ্ধ উপকরণের বিকল্প ও সর্বোত্তম ব্যবহারের জন্য অর্থনীতি সম্পর্কে ধারণা একান্ত প্রয়োজন।
  2. পেশাজীবীদের জন্যঃ কৃষক, শ্রমিক, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী তথা সমাজের সকল শ্রেণির লোকদের পেশাগত ও ব্যক্তিগত জীবনে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য অর্থনীতি পাঠ করা দরকার।
  3. চিন্তাশক্তি ও বুদ্ধিবৃত্তি বিকাশের জন্য: অর্থনীতি পাঠের ফলে মানুষের চিন্তাশক্তি ও বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ ঘটে। কেইন্স-এর মতে, "অর্থনীতি একটি চিন্তামূলক পদ্ধতি যার সাহায্যে সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া যায়।" রবার্টসন বলেছেন, "অর্থনীতি পাঠের মাধ্যমে বিচার ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
  4. সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহারের ক্ষেত্রেঃ দুষ্প্রাপ্য সীমিত সম্পদের দ্বারা অসীম অভাব পূরণের জন্য সামঞ্জস্য বিধানজনিত সমাধানে পৌঁছার লক্ষ্যে বিকল্প ব্যবহারের মাধ্যমে সম্পদের সুষ্ঠু ও সর্বোচ্চ ব্যবহার সম্ভব হয়। অর্থনীতি পাঠের মাধ্যমেই তা সম্ভব।
  5. মিতব্যয়িতার ক্ষেত্রেঃ সীমাবদ্ধ সম্পদ দিয়ে সীমাহীন অভাব পূরণের জন্য মানুষকে মিতব্যয়ী হওয়া আবশ্যক। অর্থনীতি মিতব্যয়ী হতে শিক্ষা দেয়।
  6. পরিকল্পনা প্রণয়নেঃ দ্রুত উন্নয়নের জন্য পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কোন দ্রব্য কতটুকু, কখন, কীভাবে, কাদের জন্য উৎপাদন ও বণ্টন করা হবে তা নির্ভর করে সঠিক তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়নের উপর।
  7. এজন্য অর্থনীতি পাঠ অত্যন্ত প্রয়োজন সরকারি প্রশাসন ক্ষেত্রে: সরকার বাজেট প্রণয়ন, কর আরোপ ও সংগ্রহনীতি, মুদ্রাস্ফীতি, ব্যাংকিং, অভ্যন্তরীণ বা বৈদেশিক বাণিজ্য, জনসংখ্যা তথা দেশের সার্বিক পরিচালনার জন্য অর্থনীতির জ্ঞান কাজে লাগাবেন।
  8. রাজনীতিবিদদের জন্য: রাজনৈতিক মতাদর্শ বা কর্মকাণ্ড অর্থনীতির তথ্য ও চিন্তাধারার ফলশ্রুতি। 'সমাজতান্ত্রিক' বা 'বাজার অর্থনীতি' যাই বলি না কেন সবই অর্থনীতির ধারণা। অর্থনৈতিক সাফল্য বা ব্যর্থতা রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও ব্যর্থতার মূল। সরকারি বা বিরোধীদলীয় রাজনীতিবিদদের জন্য অর্থনীতি পাঠ সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ।
  9. সমাজকর্মী, শ্রমিক নেতা, ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের জন্য: সমাজকর্মী, শ্রমিক নেতা, ব্যবসায়ী, শিল্পপতি তথা সমাজের সকল স্তরের নেতাকর্মীদের সুষ্ঠুভাবে কার্যসম্পাদনের জন্য অর্থনীতি সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান থাকা প্রয়োজন।
  10. তুলনামূলক জ্ঞানলাভে: অর্থনৈতিক অবস্থার তুলনামূলক জ্ঞান ব্যক্তিবিশেষ বা রাষ্ট্রকে অধিক অনুপ্রাণিত করে। উন্নত দেশগুলোর উন্নয়ন পদ্ধতি অনুসরণ করে অনুন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশগুলো অধিক লাভবান হতে পারে।

উপরিউক্ত আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে পরিশেষে বলা যায়, বর্তমানে অর্থনীতি একটি কল্যাণকর সামাজিক বিজ্ঞান হিসেবে সর্বজন সমাদৃত। নির্দিষ্ট অর্থনৈতিক কাঠামো সৃষ্টি করে কীভাবে অধিক সুযোগ-সুবিধার মাধ্যমে অধিকসংখ্যক নাগরিকের অর্থনৈতিক কল্যাণ সাধন করা যায় অর্থনীতি সেটির নিশ্চয়তা প্রদান করে। তাই বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে নিছক জ্ঞান লাভের জন্য নয়, বরং বাস্তব জীবনের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য অর্থনীতি পাঠ করা অপরিহার্য।

আপনার আসলেই দৈনিক শিক্ষা ব্লগর একজন মূল্যবান পাঠক। অর্থনীতির সংজ্ঞা দাও। অর্থনীতি পাঠের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা কর। এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url